//(quran)সুরা-বাকারা, আয়াত-২, সংক্ষিপ্ত ব্যাক্ষা
quran

(quran)সুরা-বাকারা, আয়াত-২, সংক্ষিপ্ত ব্যাক্ষা

allah
allah

ذٰلِکَ الۡکِتٰبُ لَا رَیۡبَ ۚۖۛ فِیۡہِ ۚۛ ہُدًی لِّلۡمُتَّقِیۡنَ ۙ﴿()(quran)۲﴾

(quran)”এ সেই কিতাব (আল কুরআন) এতে কোন সন্দেহ নেই, [১]
এতে রয়েছে মুত্তাকীদের জন্য পথ-নির্দেশক।” [২]
________[সুরা-বাকারা, আয়াত-২]______
~~~
সংক্ষিপ্ত তফসীর-
[১] এ কিতাবের অবতরণ যে আল্লাহর নিকট থেকে
এ ব্যাপারে সন্দেহের কোন অবকাশ নেই। যেমন অন্য আয়াতে এসেছে,
“এ কিতাবের অবতরণ বিশ্বপালনকর্তার নিকট থেকে এতে কোন সন্দেহ নেই।”
(সূরা সাজদা ৩২:২)
()কোন কোন আলেমগণ বলেছেন,
বাক্যটি ঘোষণামূলক হলেও তার অর্থ নিষেধমূলক।
অর্থাৎ, لاَ تَرتَابُوا فِيهِ (এতে সন্দেহ করো না)।
এ ছাড়াও এতে যেসব ঘটনাবলী উল্লেখ করা হয়েছে তার সত্যতা সম্পর্কে,
যেসব বিধি-বিধান ও মসলা-মাসায়েল বর্ণিত হয়েছে
সে সবের উপর মানবতার কল্যাণ ও মুক্তি যে নির্ভরশীল সে ব্যাপারে,
এবং যেসব আক্বীদা (তাওহীদ, রিসালাত ও আখেরাত) সংক্রান্ত বিষয় আলোচিত হয়েছে
তার সত্য হওয়ার ব্যাপারে কোন প্রকার সন্দেহ নেই।(quran)


[২] এই ঐশী গ্রন্থ আসলে তো সমস্ত মানুষের হিদায়াত
এবং পথ প্রদর্শনের জন্যই অবতীর্ণ হয়েছে, কিন্তু এই নির্ঝরের পানি দ্বারা কেবল তারাই সিক্ত হবে,
যারা ‘আবে হায়াত’ (সঞ্জীবনী পানি)-এর সন্ধানী এবং আল্লাহর ভয়ে ভীত-সন্ত্রস্ত হবে।
আর যাদের অন্তরে মৃত্যুর পর আল্লাহর সামনে দাঁড়িয়ে জবাবদিহি করার অনুভূতি এবং চিন্তা নেই,
যাদের মধ্যে সুপথ সন্ধানের
অথবা ভ্রষ্টতা থেকে বাঁচার কোনই উৎসাহ ও আগ্রহ নেই,
তারা সুপথ কোথা থেকে পাবে এবং কেনই বা পাবে?
(সকাল তো তাদের জন্য, যারা ঘুম ছেড়ে চোখের পাতা মেলে জেগে ওঠে।)
_______[তফসীর আহসানুল বয়ান]______